ব্রেকিং নিউজ:

হিডেন ক্যামেরা সনাক্ত করার কিছু উপায়

সবসময় ডেস্কঃ ২০১৫-০৭-২৭ ১৪:২১:৩৭

আপনি মার্কেটে যাচ্ছেন শপিং মলগুলোতে যাচ্ছেন জিনিসপত্র, কাপড়-চোপড় কিনছেন বা কেনার জন্য পড়ে দেখছেন এবং তাই জন্য চেঞ্জিং রুম ব্যবহার করছেন কিন্তু আপনি কি খেয়াল রাখছেন প্রযুক্তির এই দ্রুততম সময়ে এক মহল আপনাকে ছোট্ট লুকানো ক্যামেরাটিতে বন্দী করে নিচ্ছে।

এধরনের অনাকাংখিত পরিস্থিতি থেকে নিজেকে ও সমাজের অন্য মানুষগুলোর ইজ্জত , সম্ভ্রম কে রক্ষা করতে আরো সতর্ক হোন এবং খেয়াল রাখুন চারিদিকে ৷

যা আপনি জানেন না। আপনি আপনার মত করে হয়ত ড্রেস চেইঞ্জ করছেন ট্রায়াল রুমে কিন্তু আপনার অজান্তে ধারন করা হবে ছবি,ভিডিও আপনাকে সামাজিক ভাবে হেয় করার জন্য যা পরবর্তিতে নেটে বিভিন্ন পেজে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে এই সুযোগটা নেওয়া হয় বেশী ।

আবার ট্রায়াল রুমে যে আয়না গুলো থাকে সে গুলো আসল নাও হতে পারে। তাই সতর্ক থাকুন। ট্রায়াল রুমে ঢুকে চোখ বুলিয়ে নিন চারপাশে ভালোভাবে। হিডেন ক্যামেরা সনাক্ত করার কিছু উপায় জেনে নিন। ট্রায়াল রুমে (যেখানে কাপড় পাল্টাবেন) ঢুকে আপনার মোবাইল থেকে কাউকে কল দেয়ার চেষ্টা করুন। যদি কল করা যায় ও নেটওয়ার্ক থাকে- তাহলে গোপন ক্যামেরা নাই। আর যদি কল করা না যায় ও নেটওয়ার্ক হঠাৎ করে ডাউন হয়ে যায়।

তাহলে অবধারিতভাবে বুঝবেন সেখানে গোপন ক্যামেরা রয়েছে। গোপন ক্যামেরার সাথে ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবল থাকে। সিগন্যাল ট্রান্সফার করার সময় এর ইন্টারফিয়ারেন্স হতে থাকে। যার জন্য মোবাইল নেটওয়ার্ক ঐখানে কাজ করেনা।
ট্রায়াল রুমে লুকিং গ্লাসে (আয়না) আপনি যেখানে ফিটিং চেক করছেন সেটা আসল নাও হতে পারে।

হিডেন ক্যামেরা কোথায় বসান হয়?
গোপন ক্যমেরা কোথায় বসানো হয় তা স্পেসিফিকভাবে বলা মুশকিল। আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না গোপন ক্যামেরা আজকাল কোথায় কোথায় বসান হচ্ছে। সাধারনত যেখানে মেয়েরা কাপড় পাল্টায় যেমন  শপিংমলের ফিটিং বা ড্রেসিং রুম, বাথরুম, বিউটি পার্লার এগুলো গোপন ক্যামেরার আইডিয়াল স্থান। এছাড়া, আবাসিক হোটেলগুলোর বেডরুম, বাথরুম ইত্যাদিতেও গোপন ক্যামেরা থাকতে পারে।  নিচের ছবিগুলো দেখলেই বুঝতে পারবেন গোপন ক্যামেরা কোথায় কোথায় থাকতে পারে।

অনেকক্ষেত্রে আবার আয়নাকেও হিডেন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হতে পারে। এক্ষেত্রে আয়নাটি ডুয়েল মিরর হিসেবে কাজ করে। ডুয়েল মিররের উল্টোপাশ থেকে আয়নার এপাশের সবকিছুই স্পষ্টভাবে দেখা যায় সাধারন কাঁচের মত। কিন্তু এপাশ থেকে দেখলে এটাকে একটা আয়না ছাড়া আর কিছুই মনে হবেনা। অনেক গেস্ট হাউজে এই ডুয়েল মিররের উল্টোপাশে ক্যামেরা বসিয়ে কাপলদের ক্লিপ রেকর্ড করা হয়।

কিভাবে নিরাপদ থাকব? 

গোপন ক্যামেরা আছে সন্দেহ হলে চারপাশ ভাল করে দেখুন। কোথায় কোথায় গোপন ক্যামেরা থাকতে পারে তা তো দেখলেন। এছাড়াও ছাদের কোণা, দেয়ালের ছবি, ফুলের টব বা সন্দেহজনক সকল স্থান ভাল করে পর্যবেক্ষণ করুন।
মুলত রুমের অন্ধকার স্থানগুলিতে গোপন ক্যামেরা বসানো হয়। রুমের তুলনামুলক অন্ধকার স্থানগুলো ভাল করে দেখে নিন।

রুমে যদি আয়না থাকে আর তা যদি আপনার সন্দেহ হয় তাহলে আয়নার উপর একটা আঙ্গুল রাখুন। আপনার আঙ্গুল আর আয়নার আঙ্গুলের প্রতিবিম্বের মাঝখানে যদি কোন ফাক না থাকে অর্থাৎ দুটি আঙ্গুলের মাথা যদি একেবারে একটার সাথে আরেকটা লেগে থাকে তাহলে বুঝবেন এটা ডুয়েল মিরর। আর যদি মুল আঙ্গুল ও আয়নার আঙ্গুলের মাঝে একটু ফাক থাকে তাহলে এটা একটা সাধারন আয়না হিসেবে ধরে নিতে পারেন।

বেশিরভাগ ক্যামেরার পাওয়ার অন করার পরপরই একটি এলইডি বাতি জ্বলে উঠে। রুম পুরোটা অন্ধকার করে কিছুটা সময় নিন যাতে আপনার চোখে অন্ধকারটা সয়ে যায়। এবার খুব ভাল করে লক্ষ্য করুন লাল, সবুজ বা হাল্কা নীল রঙের আলো কোথাও থেকে বের হচ্ছে কিনা। যদি এমনটি হয়, তাহলে আপনি নিশ্চিত যে সেটা ক্যামেরা।

গোপন ক্যামেরা খুজে পেতে এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি পদ্ধতি। অনেক ক্যামেরাতে মোশন ডিটেক্টর থাকে অর্থাৎ আপনি যেদিকে যাবেন, ক্যামেরাও সেদিকে ঘুরে যাবে। এধরনের ক্যামেরা খুজে পেতে প্রথমে রুমের সব জানালা দরজা বন্ধ করে পুরো রুম অন্ধকার করে কিছু সময় অপেক্ষা করুন। এবার, কোন শব্দ না করে রুমে এদিক ওদিক যান যাতে করে ক্যামেরা আপনাকে ফলো করে। এবার খুব ভাল করে খেয়াল করুন ক্যামেরা আপনাকে ফলো করে ঘুরে যাওয়ার সময় কোন শব্দ হচ্ছে কিনা।

সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে গোপন ক্যামেরার হাত থেকে বাচতে চাইলে আপনার সতর্কতাই যথেষ্ট। সো সতর্ক থাকুন অলটাইম।

**আসুন আমরা সবাই সচেতন হই । বিকৃত মানসিকতার লোকদের হাত থেকে বাঁচতে নিজেদেরকেই সচেতন হতে হবে । ও হ্যাঁ, কোন শপিং মল, টয়লেট ,হোটেল বা অন্য কোথাও গোপন ক্যামেরা আছে এমন সন্দেহ হলে পুলিশে রিপোর্ট করতে ভুলবেন না । হয়তো বলবেন যে পুলিশে রিপোর্ট করলে কিছু হয়না। কিন্তু আমার ধারণা আমরা যদি মিডিয়া সচেতন হই কিছু তো একটা হবে । প্রতিবাদ করতেই হবে।

আসুন আমরা শেয়ার করে সবাইকে সচেতন করি...। 


এই বিভাগের আরও সংবাদ