ব্রেকিং নিউজ:

স্ত্রীকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করলো স্বামী!

সবসময় প্রতিবেদকঃ ২০১৫-০৮-২২ ১৮:০০:৫৩

কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নে সুমাইয়া আক্তার মনি (৩০) নামে এক গৃহবধূকে পানিতে চুবিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী মঈন উদ্দিনের (৪২) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মঈন ও তার ছোট ভাই আইন উদ্দিনকে (৩২) আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, কাদিপুর ইউনিয়নের চুনঘর গ্রামের মঈন উদ্দিন তার স্ত্রী সুমাইয়া আক্তার মনিকে শনিবার ভোররাত আনুমানিক ৪টায় তাদের বাড়ীর পাশের পুকুরে নিয়ে পানিতে চুবিয়ে মারার চেষ্টা করে। এসময় গৃহবধু মনির চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। কিন্তু ঘাতক মঈন উদ্দিনের হাতে লাঠি থাকায় কেউ সাহস করে গৃহবধুকে উদ্ধারে পাশে যেতে পারেনি। স্থানীয় লোকজন তাৎক্ষণিকভাবে কুলাউড়া থানা পুলিশকে ঘটনা অবহিত করলে এসআই নুর হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। 

এসআই নুর হোসেন জানান, কৌশলে ঘাতক মঈন উদ্দিনকে আটক করে গৃহবধু মনিকে পুকুরে পানির নিচে কাদায় পুতা অবস্থায় তুলে কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মুলত পানির নিচেই গৃহবধুর মৃত্যু হয়। তার মৃত্যু নিশ্চিত করতে ঘাতক মঈন উদ্দিন লাঠিতে ভর করে প্রায় পাঁচ ফুট পানির নিচে পা দিয়ে গৃহবধুর গলা চেপে ধরে।

স্থানীয়রা জানায়, মঈন উদ্দিন সুমাইয়া আক্তার মনির আগেও একটি বিয়ে করে। আগের স্ত্রীর একটি ১২ বছরের এক মেয়েও রয়েছে। তাছাড়া প্রায় ৪ বছর আগেই সুমাইয়া আক্তার মনিকে বিয়ে করে। সোনিয়া নামে বর্তমানে দেড় বছরের তাদের আরেকটি মেয়ে রয়েছে। কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, লাশের ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া নিহতের বড়ভাই উপজেলার ব্রাহ্মণবার ইউনিয়নের হিঙ্গাজিয়া গ্রামের লাকী মিয়া বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা (নং ২০ তারিখ ২২/০৮/১৫) দায়ের করেছেন। এঘনায় ঘাতক মঈন উদ্দিন ও তার ছোটভাই আইন উদ্দিনকে আটক করা হয়েছে। সূত্রঃ মানবজমিন


এই বিভাগের আরও সংবাদ