ব্রেকিং নিউজ:

পতন আসন্ন দেখেই সরকার বেপরোয়াঃ হান্নান শাহ

সবসময় প্রতিবেদকঃ ২০১৫-০৮-২২ ১৮:০৭:২৯

পতন আসন্ন দেখেই সরকার বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রি. জে. (অব.) আ স ম হান্নান শাহ। বলেছেন, বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার সংবিধান ও আইন মানছে না। সংবিধানে আছে সবাই সভা-সমাবেশ করতে পারবে। সরকারের যখন পতন আসন্ন হয়, তখন তারা বেপয়োরা হয়ে যায়। সরকার প্রধান জনগণের সামনে আসতে ভয় পায়। আর ভয় পেয়ে সরকার দেখামাত্র গুলি করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছে।

আজ দুুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

হান্নান শাহ বলেন, ক্রসফায়ারের মাধ্যমে সরকার নিজ দলের নেতাকর্মীসহ যেভাবে মানুষ হত্যা করছে, তাতে তাদের বিদায়ের লক্ষণ শুরু হয়েছে। বিচার বিভাগের বাইরে গিয়ে সরকার মানুষ হত্যা করছে। এই বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড বিএনপি সমর্থন করে না। বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের অভিযোগে পাকিস্তানে যেমন ভুট্টোর ফাঁসি হয়েছে, বর্তমান ক্ষমতাসীনদের একই অবস্থা হবে।

দলের নেতকর্মীদেরকে উদ্দেশে বিএনপির এ সিনিয়র নেতা বলেন, ঢাকা মহানগরের প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক প্রয়োজন। আর এই স্বেচ্ছাসেবকই হবে আগামী আন্দোলনে বিএনপির রক্ষা কবচ।

ঢাকা মহানগর আন্দোলনের যুদ্ধক্ষেত্র উল্লেখ করে হান্নান শাহ বলেন, যে সংগঠন মহানগরে শক্তিশালী হবে, তারা বিজয়ী হবে। প্রবীণরা রাজপথে কম নামেন, তারা আন্দোলন পরিচালনা করেন। তাই তরুণদেরকেই আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে।

আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তারা শোক দিবস সঠিকভাবে পালন করে না। শোকদিবস করার আগে মন্ত্রিসভায় এবার তারা চাঁদাবাজি না করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে প্রমাণ হয়, এর আগে তারা চাঁদাবাজি করেছে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র চাওয়ার অপরাধে শ’ শ’ নেতাকর্মীকে আটকে রাখা হয়েছে। তাই বলে আমাদের মনোবল ভাঙেনি। বিএনপি চেয়ারপারসন নির্দেশনা দিয়েছেন দলকে শক্তিশালী করতে হবে। সেই লক্ষ্যে সামনে সবাইকে এগিয়ে যেতে হবে। বন্দুকের জোরে সরকার বেশিদিন টিকতে পারবে না। গণমানুষের আন্দোলনের মুখে এই সরকারের পতন হবে।

স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মনির হোসেন মনিরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, যুবদল সভাপতি সৈয়দ  মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


এই বিভাগের আরও সংবাদ