ব্রেকিং নিউজ:

যেসব সেলিব্রেটি মুসলিম হয়েছেনঃ

সবসময় ডেস্কঃ ২০১৫-০৮-২৪ ১৫:৪০:৪৩

মার্কিন অভিনেত্রী, সংগীতশিল্পী, মডেল লিন্ডসে লোহান কি তবে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম গ্রহণ করছেন? যুক্তরাজ্যের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমসে এক প্রতিবেদনে এমনই প্রশ্ন তুলেছেন সংবাদ লেখিকা টয়ইন ওয়োসেজে। নিউ ইয়র্কে লিন্ডসে লোহানের হাতে একটি পবিত্র কোরআন দেখতে পেয়ে এমন প্রশ্ন রেখেছেন তিনি। লোকমুখে ছড়িয়ে পড়েছে যে, কোটি কোটি মানুষের প্রিয় এই অভিনেত্রী ইসলাম গ্রহণ করছেন।

লিন্ডসের বয়স এখন ২৮ বছর। টিএমজেড নামের ওয়েবসাইট তার ছবি প্রকাশ করেছে। তাতে দেখা গেছে, তার বাহুতে জড়িয়ে রেখেছেন পবিত্র কোরআন শরীফ।

উল্লেখ্য, লোহান বেড়ে উঠেছেন একজন ক্যাথলিক হিসেবে। তার বাহুতে পবিত্র কোরআন থাকার অর্থ তিনি ইসলাম গ্রহণ করছেন বা করেছেন এমনটা বলা যায় না। এ বিষয়ে তিনি নিজে এখনও মুখ খোলেন নি। যদি তিনি সত্যি ইসলাম গ্রহণ করার কথা ভেবে থাকেন বা গ্রহণ করে থাকেন তাহলে সেলিব্রেটি দুনিয়ায় তিনি একাই এমনটা হবেন না। আগেও এ পথ মাড়িয়েছেন অনেক সেলিব্রেটি। তার মধ্যে পপ সম্রাট মাইকেল জ্যাকসনের বোন জ্যানেট জ্যাকসন অন্যতম। তিনি ২০১৩ সালে বিয়ে করেছেন উইসাম আল মানা নামে এক মুসলিমকে। বলা হয়েছে, তিনি সঙ্গে সঙ্গে ইসলামে ধর্মান্তরিত হয়েছেন। পারিবারিক সদস্যদের উপস্থিতিতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। এরপর জ্যানেট জ্যাকসনের অনেকগুলো ছবি প্রকাশিত হয়েছে মিডিয়ায়। তাতে তাকে দেখা গেছে বোরকা পরিহিত অবস্থায়।

ওই প্রতিবেদনে এমনি তরো আরও সেলিব্রেটির কথা তুলে ধরা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন মোহাম্মদ আলী, মাইক টাইসন, ফেলিক্সিয়া ইয়েপ, লিয়াম নিসন ও জেমিমা খান। মোহাম্মদ আলী সম্পর্কে বলা হয়েছে, তিনি বড় হয়েছেন এক ব্যাপ্টিস্ট বাড়িতে। তার নাম রাখা হয়েছিল ক্যাসিয়াস মারসিলাস ক্লে জুনিয়র। কিন্তু এক পর্যায়ে এসে তিনি সিদ্ধান্ত পাল্টান। গ্রহণ করেন ইসলাম। নাম পাল্টে কিংবদন্তির এই বক্সার নতুন নাম রাখেন মুহাম্মদ আলী। সে নামেই তিনি বিশ্বজোড়া খ্যাতি পান।

মাইক টাইসন সাবেক হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন। এক পর্যায়ে তাকে কারাগারে যেতে হয়েছিল। ধারণা করা হয় ওই সময়েই তিনি ইসলাম গ্রহণ করেছেন। ২০১০ সালে তিনি পবিত্র মক্কায় হজব্রত পালন করেন। এরপর এক টুইটে লেখেন সবেমাত্র পবিত্র নগরী মক্কা ত্যাগ করলাম। এখানে আমি ওমরাহ করেছি। ইনশাআল্লাহ। আল্লাহই আমাকে সরল পথ দেখিয়ে আমার ওপর করুণা বর্ষণ করবেন। ইতিহাসে সবচেয়ে সফল বক্সারের অন্যতম এই মাইক টাইসন।

ফেলিক্সিয়া ইয়েপ মালয়েশিয়ার নারী। তিনি প্রথম পুরুষদের জন্য প্রকাশিত ফিলিপাইনের প্লেবয় ম্যাগাজিনে পোজ দেন। কিন্তু তারপরে তার বোধ জন্মে। তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন। এরপর ২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো তিনি রোজা রাখেন। এই ধর্মান্তরিত হওয়াকে তিনি ‘পুনর্জন্ম’ বলে অভিহিত করেছেন।

হলিউডের এ-তালিকাভুক্ত অভিনেতা লিয়াম নিসন। তিনি ২০১২ সালে বলেন যে, তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে থাকাকালে তিনি ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছেন। এরপর এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, দিনে পাঁচবার নামাজের আহ্বান। ওহ্ সে আহ্বান প্রথম সপ্তাহে যেন আমাকে ক্রেজি বানিয়ে ফেলে। তারপর তা আমার মনে ধরে যায়। এই আহ্বান, এই নামাজ সবচেয়ে সুন্দর বিষয়। সবচেয়ে সুন্দর জিনিস। তিনি বলেন, ইস্তাম্বুল শহরে আছে ৪ হাজার মসজিদ। সেগুলো দেখতে চমৎকার। এসব আমাকে মুসলিম হতে উৎসাহ যুগিয়েছে।

জেমিমা গোল্ডস্মিথ। পাকিস্তানের ক্রিকেট কিংবদন্তি ইমরান খানের সঙ্গে বিয়ের পর তিনি হয়ে যান জেমিমা খান। তাদের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। ইমরান খান আবার বিয়েও করেছেন। কিন্তু এখনও মিডিয়ায় জেমিমার নাম লেখা হয় জেমিমা খান। এ নিয়ে কোন উচ্চবাচ্য করেন নি জেমিমা। ইমরান খানকে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যে তিনি মুসলমান হয়ে যান।


এই বিভাগের আরও সংবাদ